কসবা ভুয়ো টিকা-কাণ্ডের এক নিরাপত্তারক্ষীকে গ্রেফতার করল পুলিশ,পাওয়া গলো নতুন তথ্য

কসবা ভুয়ো টিকা-কাণ্ডের মূল অভিযুক্ত দেবাঞ্জন দেবের নিরাপত্তারক্ষীকে গ্রেফতার করল পুলিশ। ধৃতের নাম অরবিন্দ বৈদ্য। এই অরবিন্দের সঙ্গেই রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের একটি ছবি দেখিয়ে প্রশ্ন তোলেন তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায়। রাজ্যপালের সঙ্গে প্রতারকের দেহরক্ষীর যোগ আছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। এর পরেই বৃস্পতিবার রাতে অরবিন্দকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

সূত্রের খবর, কসবা ভুয়ো টিকা-কাণ্ডের নায়ক দেবা়ঞ্জন তাঁর দেহরক্ষীকেও বেআইনি নিয়োগপত্র দিয়ে নিয়োগ করেছিলেন। দেবাঞ্জনের কার্যকলাপের সঙ্গে অরবিন্দর যোগাযোগ থাকতে পারে সন্দেহে পুলিশ তাঁকে দফায় দফায় জেরা করে।

আরও পড়ুন-আরএসএসের ‘ঘনিষ্ঠ’ প্রমাণ করতে গিয়ে সঙ্ঘের রীতি ভাঙছেন অনেক বিজেপি নেতা

অরবিন্দের বয়ানে অসঙ্গতি রয়েছে বলে জানায় পুলিশ । বিভ্রান্তিকর বয়ান দেওয়ার অভিযোগ ওঠে তাঁর বিরুদ্ধে। তার পরেই তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশের সন্দেহ, দেবাঞ্জন যে জালিয়াতি করতেন তার সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছেন অরবিন্দও। কোনও কোনও ক্ষেত্রে সক্রিয় ভূমিকা নিয়েছিলেন।

বৃহস্পতিবার দেবাঞ্জনের দেহরক্ষীর ছবি প্রকাশ করে তৃণমূল সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায় অভিযোগ করেন, অরবিন্দের সঙ্গে দীর্ঘ দিন যোগাযোগ ছিল রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের।

আরও পড়ুন-‘সেলফিশ জায়ান্ট’আলাপন প্রশ্নে ফের কেন্দ্রকে আক্রমণ মমতার

সুখেন্দু যে ছবি প্রকাশ্যে আনেন তাতে দেখা যায়, দেবাঞ্জনের পিছনে দাঁড়িয়ে আছেন অরবিন্দ। পরের ছবিতেই দেখা যায় রাজ্যপালের পরিবারের সঙ্গে দাঁড়িয়ে আছেন তিনি। মারাত্মক অভিযোগ তুলে সুখেন্দু বলেন, ‘‘শোনা গিয়েছে ওই দেহরক্ষীর মাধ্যমে নাকি বিশেষ বিশেষ ব্যক্তিদের বাড়িতে খাম, উপহার পৌঁছে যেত।’’